লিভারপুলকে উড়িয়ে শিরোপার আরো কাছে ম্যানসিটি

সংগ্রহীত

লিভারপুলকে উড়িয়ে শিরোপার আরো কাছে ম্যানসিটি

ইপিএলের শিরোপার পথে আরো এগিয়ে গেল ম্যানচেস্টার সিটি। অ্যানফিল্ডে গোল উৎসব করেছে সিটিজেনরা।

পেপ গার্দিওলার দলের কাছে ৪-১ গোলে হেরেছে লিভারপুল। ২২ ম্যাচশেষে সিটির সংগ্রহ ৫০ পয়েন্ট।

অবিশ্বাস্য, অনবদ্য এক ম্যাচ জয়ের পর উচ্ছ্বসিত ম্যানচেস্টার সিটি কোচ পেপ গার্দিওলা। অ্যানফিল্ডে বিজয় উৎসবের মঞ্চ করেছে গুন্ডোগান। ফোডেনরা। গর্বিত তাই গার্দিওলা। উল্টো চিত্র লিভারপুল শিবিরে। অ্যানফিল্ডের সন্ধ্যাটা এমন বেদনা বিধুর হবে তা ঘুনাক্ষরেও ভাবেননি ইয়ুর্গেন ক্লপ।

সব ধরণের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে সিটির চেয়ে পরিসংখ্যানটা বেশ সমৃদ্ধ লিভারপুলের। সেখানে নিজেদের মাঠে তারকায় ঠাসা দলটির এমন দুর্বিসহ অবস্থা। সমর্থকদের মত মানতে পারছেন না কোচও।

হাইভোল্টেজ ম্যাচে উত্তেজনা ফিরে ৩৬ মিনিটে। রাহীম স্টারলিংকে ফাউল করায় পেনাল্টি পায় ম্যানচেস্টার সিটি। সবাইকে স্তব্ধ করে দেন ইকায়া গুন্ডোগান। পেনাল্টি মিস করেন জার্মান তারকা।

গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর প্রায়শ্চিত্তের সুযোগ আসে গুন্ডোগানের। এবার আর কোন ভুল নয়। একক চেষ্টায় গোল করে কোচকে বুঝিয়ে দেন ভুল করলেও, তাতে ফুল ফোটাতেও পারেন তিনি।

৬৫ মিনিটে পেনাল্টি থেকে সমতা ফেরান মোহাম্মদ সালাহ। ম্যাচে আসে চরম নাটকীয়তা। তবে, বেশিক্ষণ স্বস্তিতে স্বাগতিকদের থাকতে দেননি গার্দিওলা শীষ্যরা। ৭৩ মিনিটে আবারো নায়ক গুন্ডোগান। ২-১ এ লিড ম্যানচেস্টার সিটির। গোলের রেশ কাটতে না কাটতেই আবারো অ্যানফিল্ডে সিটি ম্যাজিক। 

এবার নায়ক রাহীম স্টারলিং। ৩ গোলে পিছিয়ে পড়া লিভারপুল গোলরক্ষক অ্যালিসনের যেন তাকিয়ে দেখা ছাড়া করার ছিলনা কিছুই। কোনভাবেই পারেননি গোল উৎসব ঠেকাতে।

৮৩ মিনিটে শেষ কাজটা করে ফেলেন ফোডেন। আর তাতেই লিভারপুলকে লজ্জায় ডুবিয়ে ৪-১ গোলের জয় পায় ম্যানচেস্টার সিটি।