শিক্ষামন্ত্রীর কাছে শাবিপ্রবির শিক্ষার্থীদের ৮ প্রস্তাবনা

শিক্ষামন্ত্রীর কাছে শাবিপ্রবির শিক্ষার্থীদের ৮ প্রস্তাবনা

এরপর রাতে এক সংবাদ সম্মেলন করে শিক্ষার্থীরা। এ সময় উপাচার্য বিরোধী চলমান আন্দোলন একদিনের জন্য স্থগিতের ঘোষণা করা হয়। পাশাপাশি দেশের সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মানন্নোয়নে শাবিপ্রবির আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা সুনির্দিষ্ট আটটি প্রস্তবনা তুলে ধরেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির কাছে।

শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি ইয়াসির সরকার জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের অপসারণসহ আটটি প্রস্তাবনা তুলে ধরেছি শিক্ষামন্ত্রীর কাছে। আমাদের বেশিরভাগ প্রস্তাবে মন্ত্রী ইতিবাচক মন্তব্য করেছেন। এগুলো নিয়ে সামনে কাজ করারও আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ বার্ষিক বাজেটের কমপক্ষে ৩০% গবেষণা খাতে বরাদ্দ করতে হবে।

শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে নূন্যতম যোগ্যতা পিএইচডি ডিগ্রিতে উন্নীত করতে হবে।

শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নির্দিষ্ট সংখ্যক ডেমো ক্লাস নিতে হবে এবং শিক্ষার্থীদের থেকে ন্যূনতম মূল্যায়ন মার্ক অর্জন করলেই তাদের নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করতে হবে।

নিয়োগকৃত শিক্ষকদের কাজে যোগ দেওয়ার আগে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে।

সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার খাতা মূল্যায়নে গোপনীয় কোড ব্যবস্থা চালু করতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে পুলিশের জন্য নির্মিত সব স্থায়ী স্থাপনা অপসারণ করতে হবে।

আবাসিক হলগুলো বছরের ৩৬৫ দিনই সব সুযোগ-সুবিধাসহ খোলা রাখতে হবে।

শাবিপ্রবির চলমান সংকট নিরসনে শুক্রবার বিকেল ৩টার থেকে সিলেট সার্কিট হাউসে দীর্ঘ তিনঘণ্টাব্যাপী শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এসময় শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল ও ইউজিসির সচিব ফেরদৌস আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

শুক্রবার বিকেলে সিলেট সার্কিট হাউসে দীর্ঘ তিন ঘণ্টাব্যাপী শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলও উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে শুক্রবার সকাল ৮টা ৫০ মিনিটে বিমানে সিলেট এমএজি ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মনি। এ সময় সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীসহ সংশ্লিষ্টরা তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। দুপুর ১২টায় সিলেট সার্কিট হাউস মিলনায়তনে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় করেন তিনি।