শীর্ষ ফুটবলারদের বেতন কর্তন ছাড় পাবেন না মেসিও

শীর্ষ ফুটবলারদের বেতন কর্তন ছাড় পাবেন না মেসিও

 

ইউরোপের অন্যতম শীর্ষ ধনী ক্লাব বার্সেলোনা। তবে করোনাভাইরাসের আগ্রাসনে বিপাকে পড়েছে স্প্যানিশ জায়ান্টরা। আর্থিক ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে ক্লাবটির শীর্ষ ফুটবলারদের বেতন কর্তনের প্রস্তাব দেয় ক্লাব কর্তৃপক্ষ। তবে তাতে খুব একটা সাড়া মেলেনি ফুটবলারদের।  আর খেলোয়াড়রা এ প্রস্তাবে রাজি না হলে দেউলিয়া ঘোষণা করা হতে পারে ক্লাবটিকে। এমন খবরও প্রকাশ পেয়েছিল স্প্যানিশ গণমাধ্যমগুলোতে।

বেতন স্থগিতের প্রস্তাব পাঠানোয় সেটা প্রত্যাখ্যান করেছেন অধিকাংশ ফুটবলার। এখন বেতন কমানোর চেষ্টা চালাচ্ছে বার্সেলোনা। কিন্তু সে চেষ্টা এখনো সাফল্যের মুখ দেখেনি। এই প্রস্তাবে রাজি হয়েছেন মাত্র তিনজন খেলোয়াড়।

এর আগে করোনার শুরুতে এক দফা ক্লাবের বেতন কাটার প্রস্তাবে রাজি হয়েছিলেন ফুটবলাররা। সেবার সর্বোচ্চ ৭০ শতাংশ বেতন কাটা হয় ফুটবলারদের। তবে এবার আর ক্লাবের বেতন কাটার প্রস্তাবে রাজি হচ্ছেন না ক্লাবটির বেশির ভাগ ফুটবলারই।

তবে বর্তমানে যে কোনো উপায়ে ৩০ কোটি ইউরো খরচ কমিয়ে আনতে চায় কর্তৃপক্ষ। আর সেটা খেলোয়াড়দের বেতন থেকেই চায় তারা। আর এক্ষেত্রে তারকা খেলোয়াড় কিংবা সিনিয়র খেলোয়াড় কাউকেই ছাড় দিতে চায় না বার্সেলোনা। এমনকি মেসির ব্যাপারেও ছাড় দিতে নারাজ। বার্সেলোনার সঙ্গে মেসির চুক্তির আর মাত্র ৮ মাস বাকি। এমন অবস্থায় যদিও মেসিকে বেতন কমানোয় রাজি করানোটা বেশ কঠিন। তবে চেষ্টা অব্যাহত রাখতে চায় ক্লাবটি।

এর আগে ক্লাবের স্বার্থে বেতন কমানোর সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েছিলেন মেসি। এবারো ক্লাব চায় বেতন কেটে নিতে। আর তার জন্য মেসির সঙ্গে দর-কষাকষিও করতে রাজি তারা।

বার্সার আয়-ব্যয়ের হিসাব বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, করোনায় ২০১৯-২০ আর্থিক বছরে তাদের ক্ষতি অন্তত ৯৭ মিলিয়ন ইউরো। ২০৩ মিলিয়ন ইউরো রাজস্ব হারিয়েছে তারা। সবমিলিয়ে অংকটা প্রায় ৩০০ মিলিয়ন।