সরিষাবাড়ীতে দোয়া মাহফিল ঘিরে পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতা–কর্মীদের পাল্টাপাল্টি ধাওয়া, সংঘর্ষ ও ভাঙচুর।

পুলিশ বলছে, বিএনপি নেতা–কর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে চেয়ার ছুড়ে মারেন। পরে পুলিশ নেতা–কর্মীদের ছত্রভঙ্গ করতে মৃদু লাঠিপেটা করে। এর মধ্যে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের অর্ধশতাধিক চেয়ার ভাঙচুর হয়। এ সময় কয়েকটি বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়া যায় বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান। এ ঘটনায় আরামনগর বাজার এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে দেন।

উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক আজিম উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, দোয়া মাহফিলের সময় পুলিশ ও সরকার দলীয় নেতা–কর্মীরা তাঁদের অনুষ্ঠানে হামলা করেছেন। হামলা করে দলীয় কার্যালয়ের অর্ধশতাধিক চেয়ার ও টেবিল ভাঙচুর করেছেন। এ সময় ১০–১৫ জন নেতা–কর্মী আহত হয়েছেন।

সরিষাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর রফিবুল হক প্রথম আলোকে বলেন, পুলিশকে লক্ষ্য করে চেয়ার ছুড়ে মারলে দুই পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া হয়। দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে ছয়টি নিবন্ধনবিহীন মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।