সাবেক স্বামীকে নিয়ে আবারও বিস্ফোরক মন্তব্য নাসিরের স্ত্রী

সংগ্রহীত

সাবেক স্বামীকে নিয়ে আবারও বিস্ফোরক মন্তব্য নাসিরের স্ত্রী

তামিমাকে বিয়ের পর থেকেই আলোচনায় ছিলো জাতীয় দলের একসময়ের ‘ব্যাডবয়’ খ্যাত খেলোয়াড় নাসির হোসেন। নাসিরের স্ত্রীর সাবেক স্বামী সন্তানের খবর গণমাধ্যমে আসার পর থেকেই সমালোচনা হচ্ছিলো সর্বত্রই। যা একসময়ে আদালত পর্যন্ত গড়ায়। যার সমাধান আসবে আদালত থেকেই।কিন্তু এরই মধ্যে ফের আবার আলোচনায় এলেন নাসিরের স্ত্রী। সম্প্রতি একটি গণমাধ্যমে তামিমা তার সাবেক স্বামী রাকিবকে সাইকো বলে সম্বোধন করে তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে বলেন।

তামিমা তার সাবেক স্বামীর শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে বলেন ,আমি জানি যে তার (রাকিব) শিক্ষাগত যোগ্যতা অনেক কম।  আমি কি জানতাম ২০২১ সালে নাসিরের সঙ্গে আমার বিয়ে হবে? আর ২০১৬ সালের ওই তালাকনামার পেজ আমি খালি রাখব, ওখানে নাম বসানোর জন্য। 

তিনি বলেন, রাকিব একজন সাইকো। কারণ সাইকোলজিক্যাল সমস্যা বলেই সে হাতের মধ্যে, গলায়, একেক জায়গায় বিশ্বাস করে তাবিজ পরে। আর আধ্যাত্মিক টাইপের কথাবার্তা বলে। আমি বলব, ওকে মেডিকেলে পাঠানো হোক। সে মেন্টালিভাবে একজন সাইকো। 

নিজের ছোট মেয়ে তুবার বিষয়ে তামিমা বলেন, আমি একজন মা, তুবা আসলে  রাকিবের জন্য একটা এটিএম কার্ড ছাড়া কিচ্ছু না। রাকিবের সাথে ডিভোর্সের পর থেকেই সে আমার থেকে আর টাকা পয়সা পাচ্ছিলো না। সেজন্য সে আমার মেয়েকে ব্যবহার করছে। কারণ সে মনে করছে আমার বাচ্চা তার কাছে থাকা মানে আমার সবকিছু তার কাছে থাকা, মানে আমি তার হাতের মুঠোই। 

প্রসঙ্গত,গত ১৪ ফেব্রুয়ারি উত্তরায় একটি রেস্তোঁরায় দুই পরিবারের উপস্থিতিতে তামিমাকে বিয়ে করেন ক্রিকেটার নাসির। ১৭ ফেব্রুয়ারি তাদের হলুদে উপস্থিত হয়েছিলেন জাতীয় দলের হয়ে খেলা অনেকেই। এরপর রাজধানীর গুলশানের লেকশোর হোটেলে আলোচিত নাসির-তামিমা জুটির বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু বিয়ের সপ্তাহ পার না হতেই চরম বিতর্ক শুরু হয়।