সারা বিশ্বে করোনায় মৃত্যু-আক্রান্ত নিম্নমুখী

সারা বিশ্বে করোনায় মৃত্যু-আক্রান্ত নিম্নমুখী
বিশ্বব্যাপী করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন শনাক্তের পর থেকেই রেকর্ডসংখ্যক বেড়েছে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা। ওমিক্রনের আগে সংক্রমণ ও মৃত্যু কিছুটা কমলেও ফের তাণ্ডব চালাচ্ছে এ ভাইরাস। কিছুতেই নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না করোনা শনাক্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা।

সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন আরও ১৮ লাখ ৫৮ হাজার ৩৮ জন। একই সময়ে মৃত্যু হয়েছে আরও ৬ হাজার ৩৪৬ জনের।

এর আগে রোববার (৬ ফেব্রুয়ারি) করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন ২২ লাখ ১৭ হাজার ৩৮৪ জন। একই সময়ে মৃত্যু হয়েছিল ৮ হাজার ৩১৯ জনের।

করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুর পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, বাংলাদেশ সময় সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টা পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৩৯ কোটি ৫৮ লাখ ৮১ হাজার ২২২ জন এবং মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৭ লাখ ৫৮ হাজার ৫৮৭ জনে। আর সুস্থ হয়েছেন ৩১ কোটি ৪৭ লাখ ৪১ হাজার ৫৯৪ জন।

এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের শীর্ষ ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ কোটি ৮০ লাখ ১৭ হাজার ৪০২ জন। মোট মৃত্যু হয়েছে ৯ লাখ ২৬ হাজার ২৯ জনের।

আক্রান্তে দ্বিতীয় এবং মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত করোনায় ৪ কোটি ২২ লাখ ৭১ হাজার ২০২ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৫ লাখ ২ হাজার ৯০৫ জনের।

আক্রান্তে তৃতীয় ও মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত মোট সংক্রমিত হয়েছেন ২ কোটি ৬৫ লাখ ৩৬ হাজার ৫৯৭ জন এবং এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ৩২ হাজার ২৮৯ জনের।

আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ স্থানে থাকা ফ্রান্সে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ কোটি ৭ লাখ ৫৮ হাজার ৩৭১ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন এক লাখ ৩২ হাজার ৫০৬ জন।

পঞ্চম স্থানে থাকা যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন এক কোটি ৭৮ লাখ ৩ হাজার ৩২৫ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন এক লাখ ৫৮ হাজার ৩১৮ জন।

আক্রান্তের তালিকায় রাশিয়া ষষ্ঠ, তুরস্ক সপ্তম, ইতালি অষ্টম, জার্মানি নবম ও স্পেন দশম অবস্থানে রয়েছে। এ তালিকায় বাংলাদেশে অবস্থান দাঁড়িয়েছে ৩৯তম।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২২৪টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯।