সারা বিশ্বে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্ত কমেছে

সারা বিশ্বে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্ত কমেছে
বিশ্বব্যাপী টিকাকরণ অব্যাহত থাকলেও করোনার লাগাম টেনে ধরা যাচ্ছে না। ভাইরাসটিতর ছোবলে মৃত্যু ও আক্রান্তের সারি দীর্ঘ হচ্ছে। কয়েক দিনের মতো গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্ত কমেছে।
বাংলাদেশ সময় রোববার (৬ মার্চ) সাড়ে ৮টা পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪৪ কোটি ৫৪ লাখ ২৮ হাজার ১১৯ জন এবং মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬০ লাখ ১৫ হাজার ৫০৩ জনে। আর সুস্থ হয়েছেন ৩৭ কোটি ৮২ লাখ ৯২ হাজার ৮৮ জন।

এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় এ ভাইরাসের আক্রান্ত হয়েছেন ১৩ লাখ ৭০ হাজার ৫৩৮ জন আক্রান্ত হন। এ সময়ে মারা গেছেন ৫ হাজার ৬৩৭ জন। আগের দিন শনিবার (৫ মার্চ) ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন ১৬ লাখ ৪৩ হাজার ৮৯৮ জন। এ সময়ে মারা যান ৭ হাজার ৯১০ জন।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের শীর্ষ ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮ কোটি ৯ লাখ ১২ হাজার ৬১৯ জন। এ ছাড়া মোট মৃত্যু হয়েছে ৯ লাখ ৮৩ হাজার ৮৩৭ জনের।

আক্রান্তে দ্বিতীয় এবং মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত করোনায় ৪ কোটি ২৯ লাখ ৬২ হাজার ৬৫৮ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৫ লাখ ১৫ হাজার ৬৩ জনের।

আক্রান্তে তৃতীয় ও মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত মোট সংক্রমিত হয়েছেন ২ কোটি ৯০ লাখ ৩৩ হাজার ৫২ জন এবং মোট মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ৫১ হাজার ৯৮৮ জনের।

আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ স্থানে থাকা ফ্রান্সে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ কোটি ৩০ লাখ ১১ হাজার ৯৯৮ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন এক লাখ ৩৯ হাজার ২৪৮ জন।

পঞ্চম স্থানে থাকা যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন এক কোটি ৯১ লাখ ১৯ হাজার ১৮১ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন এক লাখ ৬২ হাজার ৮ জন।

আক্রান্তের তালিকায় রাশিয়া ষষ্ঠ, জার্মানি সপ্তম, তুরস্ক অষ্টম, ইতালি নবম ও স্পেন দশম অবস্থানে রয়েছে। এ তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ৪১তম।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২২৪টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯।