সোমালিয়ায় জঙ্গিগোষ্ঠী আল-শাবাবের হামলায় নিহত ৩০

সংগ্রহীত

সোমালিয়ায় জঙ্গিগোষ্ঠী আল-শাবাবের হামলায় নিহত ৩০

পূর্ব আফ্রিকার দেশ সোমালিয়ায় ইসলামি জঙ্গিগোষ্ঠী আল-শাবাবের হামলায় অন্তত ৩০ জন নিহত হয়েছেন। রোববার দেশটির আধা-স্বায়ত্তশাসিত গালমুদুগ প্রদেশে গাড়ি বোমা হামলায় এই প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে বলে স্থানীয় নিরাপত্তা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

গালমুদুগ থেকে সোমালিয়া সেনাবাহিনীর মেজর মোহাম্মদ আওয়াল বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানান, রোববার রাজ্যটির উইসিল শহরে সামরিক বাহিনীর একটি ঘাঁটিতে হামলা চালাতে গাড়ি বোমা ব্যবহার করেছে বিদ্রোহীরা, এর পরপরই তাদের সঙ্গে সরকারি বাহিনী ও স্থানীয় সশস্ত্র ব্যক্তিদের লড়াই শুরু হয়।

তিনি বলেন, তারা দু্টি গাড়ি বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে ঘাঁটিটিতে হামলা শুরু করে, এরপর এক ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে দুই পক্ষের মধ্যে তীব্র লড়াই হয়। গাড়ি বোমায় সামরিক যানবাহন ক্ষতিগ্রস্ত হয়। স্থানীয় বাসিন্দারা সবাই সশস্ত্র ছিলেন আর তারা ঘাঁটিতে বাড়তি শক্তি যুগিয়ে আল শাবাবকে তাড়া করে।”

লড়াইয়ে ১৭ সৈন্য ও ১৩ বেসামরিকসহ মোট ৩০ জন নিহত হয়েছেন বলে আওয়াল জানিয়েছেন।

উইসিলের এক বাসিন্দা আব্দুল্লাহি মোহাম্মদ জানিয়েছেন, হামলা চলাকালে তিনি ও অন্যান্যরা মাটির সঙ্গে সেটে শুয়ে ছিলেন। তিনি প্রায় ৩০ জনকে আহত হতে দেখেছেন বলে জানিয়েছেন।

সোমলিয়া সরকার হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেছে, লড়াইয়ে ৪১ আল শাবাব যোদ্ধা নিহত হয়েছেন আর বাকিদের সামরিক বাহিনী ও স্থানীয় সশস্ত্র বাসিন্দারা ধাওয়া করেছিল।

আহতদের চিকিৎসার জন্য হেলিকপ্টারে করে রাজধানী মোগাদিশুতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়েছে।

নিজেদের রেডিও আল আন্দালুসে দেওয়া বিবৃতিতে আল শাবাব হামলার দায় স্বীকার করেছে। তাদের যোদ্ধারা ৩০ জনেরও বেশি সৈন্যকে হত্যা ও ৪০ জনেরও বেশি সৈন্যকে আহত করেছে বলে তারা দাবি করেছে।

জঙ্গি গোষ্ঠী আল কায়েদার মিত্র আল শাবাব সোমালিয়ার কেন্দ্রীয় সরকারকে উচ্ছেদের জন্য এক দশকেরও বেশি সময় ধরে লড়াই করে আসছে। তারা দেশটিতে তাদের নিজস্ব ধরনের কঠোর ইসলামি শরিয়া আইন চালু করতে চায়।