সৌদি আরব ও বাহরাইন থেকে লেবাননের রাষ্ট্রদূত বহিষ্কার

সৌদি আরব ও বাহরাইন থেকে লেবাননের রাষ্ট্রদূত বহিষ্কার

সৌদি আরব ও বাহরাইন থেকে লেবাননের রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করা হয়েছে। উভয় দেশই ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তাদের দেশ থেকে লেবাননি রাষ্ট্রদূতকে চলে যেতে বলেছে। এর ফলে মধ্যপ্রাচ্যে নতুন জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে।

সৌদি আরব শুক্রবার জানায়, তারা ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে লেবাননের রাষ্ট্রদূতকে চলে যেতে বলেছে এবং বৈরুত থেকে তাদের রাষ্ট্রদূতকে ফিরিয়ে আনছে।
রিয়াদ অবিলম্বরে সকল লেবাননি আমদানি বন্ধেরও নির্দেশ দিয়েছে বলে সৌদি পররাষ্ট্র দফতর এক বিবৃতিতে জানিয়েছে।

লেবাননের তথ্যমন্ত্রী জর্জ কোরদাহি মন্ত্রী হওয়ার আগে দিয়ে এক সাক্ষাতকারে ‌’অপমানকর মন্তব্য করেছেন’- এমন অভিযোগে সৌদি আরব এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানিয়েছে।

কোরদাহি বলেছিলেন যে ইয়েমেনের ইরান-সমর্থিত হাউছিরা আত্মরক্ষায় নিয়োজিত এবং ইয়েমেনের বছরব্যাপী যুদ্ধ ‌’নিষ্ফল’।
পরে তিনি জানিয়েছেন, তার মন্তব্যটি একান্তই ব্যক্তিগত। তিনি সৌদি আরবের প্রতি বিদ্বেষ পোষণ করার অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে বলেছিলেন যে তিনি আরব-আরব যুদ্ধের বিরোধী।

অন্যদিকে লেবাননের প্রধানমন্ত্রী নাজিব মিকাতি কূটনৈতিক বিপর্যয় রুখতে বলেছিলেন, কোরদাহির ওই মন্তব্য তার মন্ত্রী হওয়ার এক মাস আগে করা হয়েছিল। এটা ছিল তার ব্যক্তিগত অভিমত, এতে সরকারি নীতির কোনো প্রতিফলন ছিল না।

লেবাননের রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করলেও সৌদি আরবে অবস্থানরত লেবাননিদের মর্যাদার কোনো হেরফের হবে না বলেও দেশটি জানিয়েছে।

সৌদি আরব জানিয়েছে, লেবানন থেকে মাদক রফতানি বন্ধ করার জন্যও এই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

এদিকে বাহরাইনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তারা তাদের দেশ থেকে লেবাননি রাষ্ট্রদূতকে চলে যেতে বলেছে। তারা এজন্য ৪৮ ঘণ্টার সময় বেঁধে দিয়েছে।

বাহরাইন জানায়, লেবাননি কর্মকর্তারা সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কিছু অগ্রহণযোগ্য ও আক্রমণাত্মক বক্তব্য রেখেছেন।
সূত্র : আলআরাবিয়া