স্পট ফিক্সিংয়ে ‘নিষিদ্ধ’ ওপেনারকে দলে নিল পাকিস্তান

সংগ্রহীত

স্পট ফিক্সিংয়ে ‘নিষিদ্ধ’ ওপেনারকে দলে নিল পাকিস্তান

২০১৭ সালে পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) স্পট ফিক্সিংয়ের কলঙ্ক গায়ে লাগানো ওপেনার শারজিল খানকে দলে ফেরালো পাকিস্তান। দক্ষিণ আফ্রিকা এবং জিম্বাবুয়ে সফরের জন্য টি-টোয়েন্টি দলে ফেরানো হয়েছে তাকে। স্পট ফিক্সিংয়ে জড়িয়ে পড়ায় তাকে পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। তবে পরে তার সাজা আড়াই বছর কমিয়ে দেয়া হয়। 

দক্ষিণ আফ্রিকা এবং জিম্বাবুয়ে সফরের জন্য টি-টোয়েন্টি দলের স্কোয়াডে রাখা হয়েছে শারজিলকে।  অর্ধেকটা সাজা অবশ্য ভোগ করে ঘরোয়া ক্রিকেট পিএসএলে ফিরে রানের বন্যা বইয়ে দেন শারজিল। করোনার হানায় মাঝপথে স্থগিত হয়ে যাওয়া এবারের পিএসএলে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন তিনি।

এমন দুর্দান্ত ফর্মে থাকা ব্যাটসম্যানকে আর হারাতে চাইছে না পাকিস্তানের নির্বাচকরা।  আগুনে ফর্মের পুরস্কার হিসাবে চার বছর পর জাতীয় দলে ফিরলেন ৩১ বছর বয়সী শারজিল।  

পিএসএলে এবার মোহাম্মদ রিজওয়ান এবং বাবর আজমের পরেই সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক শারজিল। তবে স্ট্রাইকরেটে ওই দুজনের চেয়েও এগিয়ে তিনি। ১৭০.৯৪ স্ট্রাইকরেটে রান করা শারজিলকে আর নির্বাচকরা উপেক্ষা করতে পারেননি।  এছাড়া টুর্নামেন্টের একমাত্র সেঞ্চুরিয়ানও ছিলেন শারজিল।

ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে জোহানেসবার্গের উদ্দেশ্যে চার্টার্ড ফ্লাইটে করে ২৬ মার্চ  দেশ ছাড়বে পাকিস্তান দল।  অন্যদিকে টেস্ট দলটি জিম্বাবুয়ে যাবে ১২ এপ্রিল।  টি-টোয়েন্টি দলের সঙ্গে দক্ষিণ আফ্রিকায় উড়াল দেবে শারজিলও।

পাকিস্তানের তিন ফরমেটের দল

টেস্ট দল : বাবর আজম (অধিনায়ক), ইমরান বাট, আবিদ আলি, আবদুল্লাহ শফিক, আজহার আলি, ফাওয়াদ আলম, সৌদ শাকিল, আঘা সালমান, ফাহিম আশরাফ, মোহাম্মদ নওয়াজ, মোহাম্মদ রিজওয়ান (উইকেটরক্ষক), সরফরাজ আহমেদ, শাহীন শাহ আফ্রিদি, হারিস রউফ, তাবিশ খান, হাসান আলি, শাহনেওয়াজ ধানি, নোমান আলি, জাহিদ মাহমুদ, সাজিদ খান।

ওয়ানডে দল : বাবর আজম (অধিনায়ক), ইমাম উল হক, ফাখর জামান, আবদুল্লাহ শফিক, হায়দার আলি, দানিশ আজিজ, সৌদ শাকিল, ফাহিম আশরাফ, মোহাম্মদ ওয়াসিম জুনিয়র, শাদাব খান, মোহাম্মদ নওয়াজ, মোহাম্মদ রিজওয়ান (উইকেটরক্ষক), সরফরাজ আহমেদ (উইকেটরক্ষক), শাহীন শাহ আফ্রিদি, হারিস রউফ, মোহাম্মদ হাসনাইন, উসমান কাদির, হাসান আলি।

টি-টোয়েন্টি দল : বাবর আজম (অধিনায়ক), শাদাব খান, শারজিল খান, মোহাম্মদ হাফিজ, হায়দার আলি, দানিশ আজিজ, আসিফ আলি, মোহাম্মদ নওয়াজ, ফাহিম আশরাফ, মোহাম্মদ রিজওয়ান (উইকেটরক্ষক), সরফরাজ আহমেদ (উইকেটরক্ষক), শাহীন শাহ আফ্রিদি, মোহাম্মদ ওয়াসিম জুনিয়র, হারিস রউফ, মোহাম্মদ হাসনাইন, উসমান কাদির, হাসান আলি, আরশাদ ইকবাল।