স্বজনদের আহাজারিতে ভারী হয়ে উঠেছে হাসপাতাল

স্বজনদের আহাজারিতে ভারী হয়ে উঠেছে হাসপাতাল

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যাত্রীবাহী নৌকাডুবির ঘটনায় এ পর্যন্ত ২১ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। একের পর এক মরদেহ আনা হচ্ছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে।

এরই মধ্যে বেশ কয়েকজনের মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। হাসপাতালের প্রধান ফটকে উপচেপড়া ভীড় রয়েছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। কিছুক্ষণ পর পর মাইকিং করে  স্বজনদের শান্তনা দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। নিহত ও আহতদের স্বজনদের দাবি, মাঝির অদক্ষতার কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। নৌকাটিতেও অতিরিক্ত যাত্রী ছিল।

ঘটনার পর থেকে প্রশাসনের পাশাপাশি জেলা ছাত্রলীগ, সদর উপজেলা ছাত্রলীগ নেতারা হাসপাতাল এসে বিভিন্ন সহযোগিতা করেছেন।

জেলা পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান বলেন, এ পর্যন্ত ২১ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

এদিকে, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক হায়াত উদ-দৌলা খান দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান, এ ঘটনা তদন্তে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রুহুল আমিনকে প্রধান করে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী তিন দিনের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। এছাড়া নিহতদের প্রত্যকের পরিবারকে ২০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে।

এর আগে বিকেল সোয়া ৫টায় বিজয়নগর উপজেলার পত্তন ইউনিয়নের লইসকা বিলে যাত্রীবাহী নৌকার সঙ্গে বালুবোঝাই ট্রলারের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২১ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।