হদিস মেলেনি যাত্রীবাহী লঞ্চটিকে আঘাত করা সেই জাহাজটির

সংগ্রহীত

হদিস মেলেনি যাত্রীবাহী লঞ্চটিকে আঘাত করা সেই জাহাজটির

এখনও হদিস মেলেনি যাত্রীবাহী লঞ্চ ‘সাবিত আল হাসান’কে আঘাত করা কার্গো জাহাজটির। লঞ্চটিকে ধাক্কা দিয়ে পালানোর সময় কোস্টারটির পিছু নেয় একটি স্পিড বোট। কিন্তু মেঘনা নদীতে পৌঁছার পর কোস্টার থেকে অনবরত পাথর ছুঁড়ে মারা হয়। আর একারণেই ঘাতক কোস্টারকে আটক করা যায়নি বলে জানায় নৌ-পুলিশ।

ঘটনার দিনের এক সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, পেছন থেকে এসে ঘাতক পাথরবাহী একটি কোষ্টার যাত্রীবাহী লঞ্চ এমএল সাবিত আল হাসানকে ধাক্কা দেয়। 

দুর্ঘটনার পর কোষ্টারটি শীতলক্ষ্যা থেকে ধলেশ্বরী হয়ে মেঘনার দিকে পালিয়ে যায়। তবে ব্রিজের কাজে থাকা একটি স্পীড বোট কোষ্টারটির পিছু নেয়। ধাওয়া করে মেঘনা নদীতে যাওয়ার পর কোষ্টার থেকে স্পীড বোটটিকে লক্ষ্য করে পাথর ছুঁড়ে মারে। এতে ভীত হয়ে স্পিড বোটটি পিছু হটে যায় বলে জানান মুক্তারপুর নৌ-পুলিশ স্টেশন ইনচার্জ কবির হোসেন খান। তিনি বলেন, ‘কোস্টার থেকে স্পিড বোটকে লক্ষ্য করে পাথর নিক্ষেপ করা হয়। এর ফলে ব্যাক করে চলে আসি। পরে আর ওই কোস্টারটির হদিস পাওয়া যায়নি।’

নারায়ণগঞ্জ থেকে মুন্সীগঞ্জে আসার পথে রোববার (৪ এপ্রিল) সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে একটি কোষ্টার প্রচন্ড গতিতে যাত্রীবাহী এমএল সাবিত আল হাসানকে ধাক্কা দিলে শতাধিক যাত্রী নিয়ে শীতলক্ষ্যায় ডুবে যায়।