হৃদরোগে আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসা সহায়তায় এগিয়ে এসেছে বসুন্ধরা গ্রুপ

সংগ্রহীত

হৃদরোগে আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসা সহায়তায় এগিয়ে এসেছে বসুন্ধরা গ্রুপ

বুক না চিরে দেশে প্রথমবারের মত হৃদপিন্ডের ভেন্ট্রিকুলার সেপটাল ডিফেক্টের বা নিচের অংশের ছিদ্র অস্ত্রপচার করে বন্ধ করা হল। ইব্রাহিম কার্ডিয়াক হাসপাতালে তিন ঘন্টায় সফল এই অস্ত্রপচার হয়। জন্ম থেকে হৃদরোগে আক্রান্ত বেশ কিছু শিশুর অস্ত্রপচারে সার্বিক সহায়তা এগিয়ে এসেছে বসুন্ধরা গ্রুপ। 

ছয় বছর বয়সী শিশু সানজিদা আক্তার। হৃদপিন্ডের নিচের অংশে ছিদ্র নিয়েই জন্ম তার। ফলে তার শরীরের স্বাভাবিক বৃদ্ধি না হওয়া এবং শ্বাসকষ্টসহ নানা জটিলতায় ভুগছিল। শিশুটির ভবিষ্যৎনিয়ে উদ্বিগ্ন ছিলেন বাবা-মা। সেই চিন্তা দুর করল ইব্রাহীম কার্ডিয়াক হাসপাতাল। হাতের নিচে ছোট্ট ছিদ্র করে তার মধ্য দিয়েই দেশে প্রথমবারের মত সফলভাবে জটিল এই অস্ত্রপচার করলেন, ডাক্তার রোকনুজ্জামান সেলিম ও তার দল। 

হৃদরোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শিশুদের সুন্দর ভবিষ্যৎ দিতে অত্যাধুনিক এই উদ্যোগ। এরই মধ্যে হৃদপিন্ডের উপরের ছিদ্রর অস্ত্রপচার শতাধিক হয়েছে। তবে নিচের ছিদ্র বন্ধে এ ধরণের অস্ত্রপচার দেশে এই প্রথম।

দেশে প্রতি বছর ৩০ হাজার শিশু হৃদরোগ নিয়ে জন্ম নেয়। যার মধ্যে অস্ত্রপচার হয় মাত্র আড়াই হাজারের। এই চিকিৎসা ব্যয়বহুল হওয়ায় অনেকেই তা করাতে পারেননা। তবে এবার তিন বছরের শিশু আয়শার সহায়তায় এগিয়ে এসেছে বসুন্ধরা গ্রুপ।

দরিদ্র পরিবারে জন্ম থেকে হৃদারোগে আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা বেশি এবং চিকিৎসাও ব্যয়বহুল। এজন্য বসুন্ধরা গ্রুপের মত অন্যান্য বড় প্রতিষ্ঠানগুলোকেও এসব শিশুর জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসার আহবান চিকিৎসকদের।