হেরেও চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটে লিভারপুল

হেরেও চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটে লিভারপুল
চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর ফিরতি লেগে ইন্টার মিলানের কাছে ১-০ গোলে হেরে বসেছে লিভারপুল। ঘরের মাঠ অ্যানফিল্ডে হারের মুখ দেখল ইংলিশ জায়ান্টরা।

মঙ্গলবার রাতে বর্তমান সিরি আ চ্যাম্পিয়নদের কাছে চলতি মৌসুমে প্রথম পরাজয়ের স্বাদ পেল ইয়ূর্গেন ক্লপের দল। তবে প্রথম লেগের জয় পাওয়ায় শেষ আটের টিকেট পাওয়াটা তাদের জন্য যথেষ্ট ছিল।

সান সিরোতে হওয়া প্রথম লেগে ২-০ গোলে জয় পাওয়ায় দুই লেগ মিলিয়ে ২-১ ব্যবধানে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে অলরেডরা।

ম্যাচের ৩১ মিনিটে ট্রেন্ট আলেকজান্ডার-আর্নল্ডের ফ্রি কিক থেকে বল পেয়ে হেড করেন জোয়েল মাতিপ। দুর্ভাগ্যজনকভাবে বল ক্রসবারে লেগে ফিরে আসে।

১০ মিনিট পর ইন্টারের দারুণ সুযোগ প্রতিহত করেন লিভারপুলের ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক অ্যাসিসন বেকার। দুরহ কোণ থেকে ডান পায়ের দূরপাল্লার শট নিয়েছিলেন হাকান কালহানোগলু। তার নেয়া শট অ্যালিসন ঠেকিয়ে দেন।

বিরতির পর ৪৮ মিনিটে মোহাম্মদ সালার পাসে বল পান ট্রেন্ট আলেকজান্ডার-আর্নল্ড। এই ইংলিশ ফুটবলারের নেয়া দান পায়ের দূরপাল্লার শট প্রতিহত করেন ইন্টারের গোলরক্ষক সামির হান্ডানোভিচ।

চার মিনিট পর লিভারপুলকে আবারো গোলবঞ্চিত করে ক্রসবার। সালাহর বাঁ পায়ের কিক জালে না জড়িয়ে ক্রসবারে লেগে ফেরে।

৬১ মিনিটের মাথায় আলেক্সিস সানচেজের কাছ থেকে বল নিয়ে ডি বক্সের বাইরে থেকে দেয়া দারুণ শটে গোল করে ইন্টারকে আনন্দে ভাসান লৌতারো মার্টিনেজ।

লিড পাওয়ার আনন্দ অবশ্য অতিথি দলের দুই মিনিট পরই প্রায় উধাও হয়ে যায়। ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার ফ্যাবিনহোকে ফাউল করায় দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন সানচেজ। ১০ জনের দলে পরিণত হওয়া ইন্টার তাই বিপদে পড়ে।

ভাগ্যবিধাতা এদিন যেন লিখেই রেখেছিল যে লিভারপুল গোল পাবে না। ৭৬ মিনিটে সাদিও মানের পাসে বল পাওয়া সালাহর নেয়া বাঁ পায়ের শট আবারো ক্রসবারে লাগে। তাতে আর স্বাগতিকদের পরাজয় এড়ানো সম্ভব হয়নি। যদিও প্রথম লেগের ফলাফলের ভিত্তিতে তারাই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টারে উঠে গেল।